ঢাকাশুক্রবার , ২৭ মে ২০২২
  1. Btribune Eng
  2. আন্তর্জাতিক
  3. এক্সক্লুসিভ
  4. খেলার বার্তা
  5. চাকুরি – শিক্ষা
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. বিজ্ঞান – প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. রাজনীতি
  11. লাইফ স্টাইল
  12. স্যোসাল মিডিয়া

করোনার তান্ডব যখন কমতে শুরু করলো ঠিক তখনি আতঙ্ক ছড়াচ্ছে ‘মাস্কিপক্স’ ভাইরাস

barta-tribune
মে ২৭, ২০২২ ১:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পৃথিবী জুড়ে করোনার তান্ডব যখন কমতে শুরু করলো ঠিক তখনি বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে ‘মাস্কিপক্স’নামের রোগ।
সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় জাতিসংঘ স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, আফ্রিকার বাইরে বিশ্বের ১৫টি দেশে মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।ফলে ভয় আতঙ্কে জনজীবন বিপন্ন।ইতিমধ্যে ইউরোপ,উত্তর আমেরিকাসহ বেশ কিছু দেশে কয়েক ডজনের বেশি মাঙ্কিপক্সের রোগী শনাক্ত করেছে দেশগুলোর স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ।
কিন্তু সৌদি আরবে এখনো মাস্কিপক্স শনাক্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়। নাগরিকদের আশ্বস্ত করতে পেরেছে তারা।তবে সৌদি সরকার ১৬ টা দেশ ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।
চলতি মাসের শুরু থেকে দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে ‘মাস্কিপক্স ‘।সর্বশেষ খবরে জানা গেছে কানাডায় ১২ জনের অধিক মাঙ্কিপক্সের রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে দেশটির সরকার। তার আগেও ৪০ জনের অধিক এই রোগী শনাক্ত হওয়ার দাবি করেছিল ইউরোপের দেশ স্পেন ও পর্তুগাল।
মাস্কিপক্স এর উপসর্গ হিসেবে গায়ে ব্যথা, আকারে বড় বসন্তের মতো গায়ে গুটি গজিয়ে ওঠাকে আপাতত চিহ্নিত করা হয়েছে। মাঙ্কিপক্সের একটি রূপ এতটাই ভয়ংকর যে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ১০ শতাংশ তাতে মারাও যেতে পারেন।
তবে অধিকাংশ আক্রান্ত মানুষ সিস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।
তবে এ রোগ ছড়াচ্ছে বেশি সমকামী পুরুষদের থেকে। বিষয়টি ভালোমতো খতিয়ে দেখবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

আফ্রিকা থেকে ছড়ানো মাংকিপক্স নামে এক রোগ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ক্যানাডা, স্পেন, পর্তুগাল এবং ব্রিটেনে ছড়িয়ে পড়েছে বলে এসব দেশের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ এবং স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে।
বিরল এই রোগের সর্বশেষ কেস ধরা পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। ক্যানাডায় মাংকিপক্সের ১৩টি কেসের ঘটনা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ এখন তদন্ত করে দেখছে।
পর্তুগালে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ ব্যক্তি এবং স্পেনে আরও সাতজন সংক্রমিত হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।
ব্রিটেনে আক্রান্ত হয়েছেন মোট নয় জন।
মাংকিপক্স রোগ কী?
এই রোগ ছড়ায় মাংকিপক্স নামে এক ধরনের ভাইরাসের মাধ্যমে। বৈশিষ্ট্যের দিক থেকে এটি অনেকটা জল বসন্তের ভাইরাসের মতো। তবে এর ক্ষতিকারক প্রভাব কম, এবং বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর সংক্রমণের হারও কম।
পশ্চিম ও মধ্য আফ্রিকার নিরক্ষীয় বনাঞ্চলে এই রোগের প্রাদুর্ভাব বেশি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।