ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১০ নভেম্বর ২০২২
  1. Btribune Eng
  2. আন্তর্জাতিক
  3. এক্সক্লুসিভ
  4. খেলার বার্তা
  5. চাকুরি – শিক্ষা
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. বিজ্ঞান – প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. রাজনীতি
  11. লাইফ স্টাইল
  12. স্যোসাল মিডিয়া

রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে ২ লাখ সেনা, ৪০ হাজার বেসামরিক নিহত!

Ar Monna
নভেম্বর ১০, ২০২২ ৮:১৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ইউক্রেন রাশিয়া যুদ্ধে প্রায় ২ লাখ সেনা এবং প্রায় ৪০ হাজার বেসামরিক নিহত হয়েছে। সম্প্রতি মার্কিন সিনিয়র জেনারেল এ তথ্য প্রকাশ করেছেন। খবর বিবিসির।

মার্কিন জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মিলিও যুক্তরাষ্ট্রের অলাভজনক সংস্থা দ্য ইকোনমিক ক্লাব অব নিউইয়র্কের এক অনুষ্ঠানে বক্তব্যে ৪০ হাজার বেমসামিকর নিহতের কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, ২ লাখ নিহত সেনাদের মধ্যে ১ লাখ রুশ এবং ১ লাখ ইউক্রেনীয় সেনা।

পশ্চিমা আধিকারিকদের দেওয়া এই অনুমানগুলি এখনও সর্বোচ্চ।

তিনি আরও বলেন, মস্কোর সঙ্গে আলোচনায় পুনরায় প্রবেশ করতে ইচ্ছুক কিয়েভ আলোচনার জন্য একটি প্রস্তাব করেছে।

সাম্প্রতিক দিনগুলিতে ইউক্রেন মস্কোর সঙ্গে আলোচনা করতে ইচ্ছুক হওয়ার কিছু ইঙ্গিত দিয়েছে। তবে এর জন্য কঠিন শর্ত দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কি।

কিন্তু নিউইয়র্কে বক্তৃতায় জেনারেল মিলি যোগ করেছেন, কোনও আলোচনা সফল হওয়ার জন্য, রাশিয়া এবং ইউক্রেন উভয়কেই একটি ‘পারস্পরিক স্বীকৃতিতে’ পৌঁছাতে হবে যে যুদ্ধকালীন বিজয় সম্ভবত সামরিক উপায়ে অর্জন করা যায় না এবং তাই আপনাকে অন্যান্য উপায়ে ফিরে আসতে হবে।’

রাষ্ট্রপতি জো বাইডেনের সবচেয়ে সিনিয়র সামরিক উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করা এই শীর্ষ জেনারেল বলেছিলেন, হতাহতের পরিমাণ মস্কো এবং কিয়েভ উভয়কেই আসন্ন শীতের মাসগুলিতে আলোচনার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে বোঝাতে পারে, যখন হিমায়িত অবস্থার কারণে লড়াই ধীর হতে পারে।

জেনারেল মিলি বলেন, ‘আপনি ভালোভাবে দেখছেন ১ লাখ রুশ সেনাও হতাহত হয়েছে। সম্ভবত ইউক্রেনের দিকেও একই সংখ্যা লক্ষ্যণীয়।

ইউক্রেন এবং রাশিয়া উভয়ই ঈর্ষার সঙ্গে তাদের হতাহতের সংখ্যা আড়াল করে।

সেপ্টেম্বরে মস্কোর সর্বশেষ আপডেটে বলা হয়েছে, সংঘাতের শুরু থেকে মাত্র ৫ হাজার ৯৩৭ সৈন্য নিহত হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু উল্লেখযোগ্যভাবে বেশি মৃতের সংখ্যার খবর খারিজ করে দিয়েছেন।

জেনারেল মিলির অনুমান একেবারে বেশি। ১৯৭৯-৮৯ আফগানিস্তান সংঘাতে ১৫ হাজার সোভিয়েত সৈন্য মারা গেছে বলে অনুমান করা হয়েছিল।

ইউক্রেন মূলত হতাহতের পরিসংখ্যান দেওয়া থেকে বিরত থাকে। কিন্তু আগস্টে, সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চীফ ভ্যালেরি জালুঝনি ইউক্রেনীয় মিডিয়াকে উদ্ধৃত করে বলেছিল, এখন পর্যন্ত ৯ হাজার ইউক্রেনীয় সৈন্য মারা গেছে।

জাতিসংঘ বলেছে, তারা সংঘাতে জড়িতদের দ্বারা প্রকাশিত পরিসংখ্যানকে নির্ভরযোগ্য বলে মনে করে না।

জেনারেল মিলি বলেন, এখানে প্রচুর দুর্ভোগ, মানুষের কষ্ট হচ্ছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া আক্রমণ শুরু করার পর থেকে দেড় থেকে ৩ কোটি শরণার্থী তৈরি হয়েছে।

জাতিসংঘ রাশিয়াসহ ইউরোপ জুড়ে ইউক্রেন থেকে ৭০ লাখ ৮০ হাজার মানুষকে শরণার্থী হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। যাইহোক, এই পরিসংখ্যানে তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি যারা তাদের বাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছে কিন্তু ইউক্রেনে রয়ে গেছে।

বুধবার, মস্কো ঘোষণা করেছে যে তার সৈন্যরা মূল দক্ষিণের শহর খেরসন থেকে প্রত্যাহার শুরু করবে।

জেনারেল মিলি বলেন যখন ‘প্রাথমিক সূচক’ পরামর্শ দেয় পশ্চাদপসরণ শুরু হয়েছে। তিনি লক্ষ্য করেছেন, রাশিয়া শহরে প্রায় ২০ থেকে ৩০ হাজার সৈন্য সংগ্রহ করেছে এবং প্রত্যাহারে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সেপ্টেম্বরে ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য প্রায় ৩ লাখ রিজার্ভস্টকে আহ্বান করার পর খেরসন থেকে রাশিয়ার প্রত্যাহারের খবর আসে। পশ্চিম এবং ইউক্রেনের সামরিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সংহতির প্রয়োজনীয়তা এটাই দেখায় যে রাশিয়ান সৈন্যরা ইউক্রেনের যুদ্ধক্ষেত্রে খারাপভাবে ব্যর্থ হচ্ছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।